সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, শেয়ার বাজার ডিএসইতে বাজার মূলধন বেড়েছে ১২ হাজার কোটি টাকা

ডিএসইতে বাজার মূলধন বেড়েছে ১২ হাজার কোটি টাকা


পোস্ট করেছেন: bhorerkhobor | প্রকাশিত হয়েছে: 02/23/2020 , 8:18 pm | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,শেয়ার বাজার


পুঁজিবাজারে গত সপ্তাহজুড়ে ইতিবাচক গতিতে লেনদেন হয়। সব সূচক ইতিবাচক হওয়ার পাশাপাশি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছে ৭৪ দশমিক ১৫ শতাংশ। সেইসঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেনও একই হারে বেড়েছে। গত সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে দুদিন সূচক কমেছে। তিন দিন বেড়েছে। উত্থানের গতি অনেক বেশি ছিল। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন বেড়েছে তিন দশমিক ৫১ শতাংশ বা ১২ হাজার ১৯৬ কোটি টাকা। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।

সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৬৮ দশমিক ৫৩ পয়েন্ট বা তিন দশমিক ৬৯ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৭৩৩ দশমিক ১৪ পয়েন্টে স্থির হয়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৪৩ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা চার দশমিক ২১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৮৯ দশমিক ৮১ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএস৩০ সূচক ৫৬ দশমিক ১৭ পয়েন্ট বা তিন দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৫৯২ দশমিক ৮০ পয়েন্টে স্থির হয়। মোট ৩৬০টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৪২টির, কমেছে ৯১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৫ কোম্পানির শেয়ারদর। লেনদেন হয়নি দুটির। দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৯০৪ কোটি ৩৪ লাখ ৯৪ হাজার ৯৮৯ টাকা। আগের সপ্তাহে দৈনিক গড় লেনদেন হয় ৫১৯ কোটি ৩০ লাখ ৯ হাজার ৯৯২ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দৈনিক গড় লেনদেন বেড়েছে ৩৮৫ কোটি চার লাখ টাকা বা ৭৪ দশমিক ১৫ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট টার্নওভার বা লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় চার হাজার ৫২১ কোটি ৭৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯৪৪ টাকা, আগের সপ্তাহে যা ছিল দুই হাজার ৫৯৬ কোটি ৫০ লাখ ৪৯ হাজার ৯৫৯ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার বেড়েছে এক হাজার ৯২৫ কোটি ২৪ লাখ টাকা বা ৭৪ দশমিক ১৫ শতাংশ।

ডিএসইতে গত সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৪৭ হাজার ৬৬ কোটি ১৫ লাখ ২৬ হাজার ৩৪৬ টাকা, শেষ কার্যদিবসে যার পরিমাণ ছিল তিন লাখ ৫৯ হাজার ২৬২ কোটি ৫৫ লাখ ৪৬ হাজার ৪২২ টাকা। সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন বেড়েছে তিন দশমিক ৫১ শতাংশ বা ১২ হাজার ১৯৬ কোটি টাকা।

গত সপ্তাহে ডিএসইর টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে সিমেন্ট খাতের এমআই সিমেন্ট ফ্যাক্টরি লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ৪০ দশমিক ২০ শতাংশ বেড়েছে। তালিকায় এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা প্রিমিয়ার সিমেন্ট মিলসের দর ৩৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ, কোহিনুর কেমিক্যালস কোম্পানির দর ৩৫ দশমিক ২৫ শতাংশ, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলসের দর ২৭ দশমিক ৩৭ শতাংশ বেড়েছে। রিজেন্ট টেক্সটাইল মিলসের দর ২৪ দশমিক ১৪ শতাংশ, আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের স্কিমের দর ২৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ, এমএল ডায়িংয়ের ২২ দশমিক ৯২ শতাংশ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের দর ২২ দশমিক ৮৩ শতাংশ, সায়হাম টেক্সটাইল মিলসের দর ২২ দশমিক ৭৩ শতাংশ এবং গ্লোবাল হেভী কেমিক্যালসের দর ২১ দশমিক ৪৮ শতাংশ বেড়েছে।

অন্যদিকে ১৩ দশমিক শূন্য আট শতাংশ কমে সাপ্তাহিক দরপতনের শীর্ষে অবস্থান করে স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা সমতা লেদারের দর ১০ দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের দর ৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ, শ্যামপুর সুগার মিলসের দর ৯ শতাংশ, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৯২ শতাংশ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের দর সাত দশমিক ৬০ শতাংশ, ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৫৯ শতাংশ, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৫৭ শতাংশ, ফাস ফাইন্যান্সের দর সাত দশমিক ২৭ শতাংশ এবং আনলিমা ইয়ার্ন ডায়িং লিমিটেডের দর ছয় দশমিক ৯৩ শতাংশ কমেছে।

ডিএসইতে টার্নওভারের দিক থেকে শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো- লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, খুলনা পাওয়ার, ইন্দোবাংলা ফার্মা, সামিট পাওয়ার, ওরিয়ন ফার্মা, গ্রামীণফোন, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস, ওরিয়ন ইনফিউশন ও এডিএন টেলিকম লিমিটেড।

অন্যদিকে দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৩১৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৩৩টির, কমেছে ৬০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২০টির দর।

সিএসইতে গত সপ্তাহে সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স বেড়েছে চার দশমিক ৫০ শতাংশ। এছাড়া সিএএসপিআই সূচক চার দশমিক ৪৭ শতাংশ, সিএসই৫০ সূচক চার দশমিক ৫৮ শতাংশ ও সিএসআই সূচক চার দশমিক ৭০ শতাংশ বেড়েছে। সিএসই৩০ সূচক বেড়েছে ছয় দশমিক ৮৩ শতাংশ।

সিএসইতে গত সপ্তাহে টার্নওভারের পরিমাণ দাঁড়ায় ২৪৫ কোটি ৪৩ লাখ ৫৬ হাজার ৯২০ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ১৫৪ কোটি ৭২ হাজার ৫৫ টাকা। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৯১ কোটি টাকা।

৪৪ দশমিক ৬১ শতাংশ বেড়ে সিএসইতে সাপ্তাহিক টপ টেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে এমআই সিমেন্ট ফ্যাক্টরি লিমিটেড। প্রিমিয়ার সিমেন্টের দর ২৯ দশমিক ৯২ শতাংশ, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলসের দর ২৯ দশমিক ৫১ শতাংশ, স্যালভো কেমিক্যালের দর ২৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ বেড়েছে। এর পরের অবস্থানগুলোতে থাকা গ্লোবাল হেভি কেমিক্যালের দর ২৮ শতাংশ, মেঘনা সিমেন্টের দর ২৭ দশমিক ৭১ শতাংশ, কোহিনুর কেমিক্যালের দর ২৬ দশমিক ৫১ শতাংশ, বিএসআরএম স্টিলসের দর ২২ দশমিক ৮৭ শতাংশ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের দর ২১ দশমিক ৮৭ শতাংশ ও মেট্রো স্পিনিং লিমিটেডের দর ২১ দশমিক ৬২ শতাংশ বেড়েছে।

অন্যদিকে ১৪ দশমিক ৫২ শতাংশ কমে টপ টেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। ইমাম বাটন ইন্ডাস্ট্রিজের দর ১২ দশমিক ৭৯ শতাংশ কমেছে। এর পরের অবস্থানগুলোতে ছিল সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, আনলিমা ইয়ার্ন, প্যারমাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, সমতা লেদার, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ, ফাস ফাইন্যান্স ও নর্দার্ন জেনারেল ইন্স্যুরেন্স।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো ডাচ্-বাংলা ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, সামিট পাওয়ার, এসএস স্টিল, বেক্সিমকো লিমিটেড, বীকন ফার্মা, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, রিং শাইন টেক্সটাইল, শেফার্ড ইন্ডাস্টিজ ও এডিএন টেলিকম লিমিটেড।

Comments

comments

Close