সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষাঙ্গন বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ করছে ঢাবি’র ফার্মাসি অনুষদ

বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ করছে ঢাবি’র ফার্মাসি অনুষদ


পোস্ট করেছেন: ভোরের খবর ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: 03/23/2020 , 12:14 am | বিভাগ: শিক্ষাঙ্গন


করোনা আতঙ্কে যখন সাধারণ মানুষ তাদের ঘর থেকে বের হতে ভয় পাচ্ছে তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ফার্মেসি অনুষদের একদল শিক্ষক-শিক্ষার্থী অনুষদের ল্যাবে কাজ করছেন। আইসো প্রোপাইল অ্যালকোহল, ডিস্টিল্ড ওয়াটার, লেমন জুস, গ্লিসারিন এসব দিয়ে ঢাবির ফার্মেসি অনুষদ ও বায়োমেডিকেল রিসার্চ সেন্টার যৌথ ভাবে বানিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

শুধু বানানোই নয়, এটি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীদের মাঝে বিনামূল্যে বিক্রির ঘোষণাও দিয়েছেন তারা। সহযোগিতা পেলে এটি সাধারণ মানুষকেও বিনামূল্যে দিতে চান তারা। অনুষদের এমন ঘোষণা ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে ৩ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে জানায় রোগ তত্ত্ব নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট (আইইডিসিআর) । এরপর দেশের মানুষের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। আতঙ্কিত হয়ে তারা মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনতে ফার্মেসি ও ডিপার্টমেন্টাল স্টোরগুলোতে ভিড় করেন। সঙ্কট দেখা দেয় মাস্ক-হ্যান্ড স্যানিটাইজারের। রাতারাতি বেড়ে যায় করোনা প্রতিরোধের প্রয়োজনীয় এই উপকরণের দাম। ভোগান্তিতে পড়েন শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ।

সেই ভোগান্তি থেকে রেহাই মেলেনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরও। তবে শিক্ষার্থীদের সেই ভোগান্তি কিছুটা হলেও কমিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদ। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তাদের বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহের জন্য নিজেরাই তৈরি করেছে উন্নত মানের হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

ফার্মেসি অনুষদের নিজস্ব ল্যাবে ফার্মেসি অনুষদ ও বায়োমেডিকেল রিসার্চ সেন্টার যৌথ ভাবে এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষার জন্য তারা এটি তৈরি করেছে। গত ৮ মার্চ বিভাগের নিজস্ব অর্থায়নে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বানানোর কাজ শুরু হয়। ১১ মার্চ তা বানানো সম্পন্ন হয়। এখন পর্যন্ত কয়েক দফায় বিতরণ করা হয়েছে এই স্যানিটাইজার এবং এখনো বিভিন্ন সংগঠন ও সংস্থায় বিতরণ চলমান রেখেছে।

করোনাভাইরাস আতঙ্কে এরইমধ্যে ক্যাম্পাস ছেড়েছেন অনেক শিক্ষার্থী। তবে যারা ক্যাম্পাসে অবস্থান করছেন তারা ফার্মেসি বিভাগের এমন কাজে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। শিক্ষার্থীরা জানান, ফার্মেসি অনুষদের বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণের উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।

Comments

comments

Close