সর্বশেষ সংবাদ
প্রধান সংবাদ, রাজনীতি মুজিব শতবর্ষে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসূচি

মুজিব শতবর্ষে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসূচি


পোস্ট করেছেন: ভোরের খবর ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: 06/30/2020 , 8:48 pm | বিভাগ: প্রধান সংবাদ,রাজনীতি


এজি লাভলু, স্টাফ রিপোর্টার

“মুজিব বর্ষের আহবান, তিনটি করে গাছ লাগান”। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সংগ্রামী সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য দাদার নির্দেশনা অনুযায়ী কুড়িগ্রাম জেলায় বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালিত হল। এতে নেতৃত্ব দিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের ত্যাগী ও জনপ্রিয় ছাত্রলীগ নেতা সাবেক সহ-সভাপতি মো: রাজু আহমেদ।

এছাড়াও এই বৃক্ষরোপন কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করছেন কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি পরিচ্ছন্ন ছাত্রলীগ নেতা মো: ফিরোজ শাহী এবং সাবেক সদস্য জেলা ছাত্রলীগ ও কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা শাখার সাবেক সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক কাজী আনিসুল বারী, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের পাঠাগার বিষয় সম্পাদক আল হেলাল রাকিব, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের স্কুল ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আতিকুর রহমান রাব্বি, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সদস্য আব্দুল্লাহ আল কাফী, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উদীয়মান ও জনপ্রিয় ছাত্রলীগ নেতা এ আর এম মেহেদী আমীন, মোঃ সোলায়মান গাদ্দাফী। সেই সংঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন জাহেদুল ইসলাম রুবেল, রাব্বু, রুদ্র, বিপাশ, বাধন, উৎস, আজিজুল, বিদ্যুৎ, সৈকত, হৃদয়, প্রান্ত, সৌরভ, রানা, হিমেল, ফুয়াদ, সিহাব,সাকিব সহ অনেকেই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ রাজু আহমেদ জানান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশে রংপুর বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্ব প্রাপ্ত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা সজিব নাথ দাদার দিক নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কুড়িগ্রাম পৌর সভায় পাঁচশত বৃক্ষ রোপণ করবো এবং পাশাপাশি জেলার সদর উপজেলা সহ প্রায় সব উপজেলায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্যোগ নিয়েছি। আজ সকালে আমরা কুড়িগ্রাম পৌর সভার ০৮নং ওয়ার্ডের মোঃ মনিনুর রহমান মনি ভাইয়ের বাসার সামনে পতিত জমিতে ৫০টি গাছ রোপণ করি, উনি সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় আছেন। উনি বেকার জীবন যাপন করতেছে, আমরা মূলত এই বৃক্ষ গুলো রোপণ করতেছি মানুষের বাসার পাসে পতিত জমিতে, যাতে বৃক্ষ গুলোর যত্ন নিতে পারে। এখানে আমরা গুরুত্ব দিতেছি বেকার, অসহায়, গরীব নেতাকর্মীদেরকে। উনারা এই বৃক্ষগুলো যত্ন নিয়ে ভবিষ্যতে নিজেদের সম্পদের পরিনত করবেন আমাদের এই ধারাবাহিক কার্যক্রম চলমান থাকবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের যে সমস্ত নেতা-কর্মী যারা অর্থ সংকটের কারনে জায়গা থাকার পরেও গাছ লাগাতে পারতেছেন না তারা যদি যোগাযোগ করে তাহলে যথাসম্ভব সবাইকেই গাছ এর ব্যাবস্থা করে দেওয়া হবে।

মোঃ রাজু আহমেদ আরও জানান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময় সংকট নিরসন মুহুর্তে কাজ করেছে করবে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবে।

উল্লেখ্য যে, মো: রাজু আহমেদ বিগত দিনে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি, কুড়িগ্রাম পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের সদস্য হিসাবে তার উপর অর্পিত সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করছেন।

Comments

comments

Close