সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, জেলা সংবাদ, রংপুর বিভাগ নাগেশ্বরীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের কু-কৃর্তি

নাগেশ্বরীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের কু-কৃর্তি


পোস্ট করেছেন: ভোরের খবর ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: 07/06/2020 , 11:03 pm | বিভাগ: অপরাধ,জেলা সংবাদ,রংপুর বিভাগ


ভোরের খবর ডেস্ক: নাগেশ্বরী উপজেলার কুটিপয়ড়াডাঙ্গা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন যাবত গ্রামবাসী প্রশাসনের কাছে তার অপকর্মের অভিযোগ করে আসছে। গ্রামবাসীর স্বাক্ষর জাল করে নানা অপকর্মের কারণে (৫ জুলাই ২০২০) হাতে নাতে গ্রামবাসী ধরে ফেলে।

আরও খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন তাঁর পিতার নাম বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন অপকর্ম করছে এবং সরকারের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ভোগ করে আসছে। প্রমাণস্বরূপ ভোটর আইডি কার্ডে জয়নাল আবেদীনের পিতার নাম মৃত মইনুদ্দিন শেখ, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদে বিভিন্ন জায়গায় জয়নাল আবেদীনের পিতার নাম মৃত ময়েন উদ্দিন। জয়নাল আবেদীন তার বিভিন্ন অপকর্মে কখনো পিতার নাম মৃত নইমুদ্দিন শেখ আবার কখনও মৃত মৈমুদ্দিন শেখ, খইমুদ্দিন শেখ কখনও মৃত মৈমুদ্দিন সেখ ব্যবহার করে বিভিন্নজনকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে এবং গ্রামবাসীর স্বাক্ষর জাল করে বিভিন্ন জনের সাথে নানা প্রতারণাসহ টাকা আত্মাসাৎ করে আসছে। অত্র গ্রামের সফিকুল ইসলাম সরু, ইউনুছ আলীসহ অনেকেই তার অপকর্মের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার কুড়িগ্রামসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছেন। এরকম প্রশ্নবিদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে এখনই তদন্ত হওয়া অতীব জরুরী বলে গ্রামবাসী মনে করেন।

গ্রামবাসী আরও জানান, তিনি মুক্তিযোদ্ধা হয়েও বিভিন্ন জনের কাছ থেকে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন সময় মানুষের কাছ থেকে টাকা পয়সা তুলে আত্মসাৎ করেন এবং মসজিদ মাদরাসার উন্নয়নের কথা বলে গ্রামবাসীকে ভুলিয়ে ভালিয়ে বিভিন্ন জনের স্বাক্ষর জাল করে নানা অপকর্ম করছেন। তার এ অপকর্মের প্রধান সহযোগী হাফিজুর রহমান বাবু এবং তার দুই ছেলে ফারুক ও আপেলসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র।

অত্র গ্রামের শ্রী মহেন্দ্র বর্মনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, হঠাৎ করে পুলিশ আজ আমাকে একটি নোটিশ দিতে আসে, সেখানে আমার নাম দেখে জানতে চাই আমার নাম এখানে কিভাবে আসলো। পরে গ্রামবাসীর অনেকের সাথে কথা বলে জানতে পারি, গ্রামের জয়নাল আবেদীন, হাফিজুর রহমান বাবু, আপেল ও ফারুক মিলে গ্রামবাসীসহ আমার স্বাক্ষর জাল করেছে। আমি এর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে নাগেশ্বরী উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুর মোহাম্মদ (নুরু)’র সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি জানান, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জন আমাকে জয়নাল আবেদীনের বিষয়ে গ্রামবাসীর স্বাক্ষর জালসহ বিভিন্ন অভিযোগ করেছেন। তিনি আরও জানান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নাগেশ্বরী অফিসে জয়নাল আবেদীনের পিতার নাম মৃত ময়েন উদ্দিন উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু ভোটার আইডি কার্ডে তার পিতার নাম মৃত মইনুদ্দিন শেখ রয়েছে বলে জানতে পেরেছি। কিন্তু জয়নাল আবেদীন যে বিভিন্ন জায়গায় তার পিতার নাম বিভিন্নভাবে উপস্থাপন করে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা নেই। ভবিষ্যতে আমি তাকে সাবধান হতে বলবো যাতে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান অটুট থাকে।

Comments

comments

Close